Liger-এ খারাপ অভিনয়ের কারণে ট্রোলড হলেন অনন্যা পান্ডে, নেটিজেনরা ক্ষুব্ধ হয়ে বললেন এ কথা

বিজয় দেবেরকোন্ডা এবং অনন্যা পান্ডে অভিনীত সিনেমা লিগার, ২৫শে আগস্ট মুক্তি পেয়েছে, কিন্তু মানুষ যেভাবে এই সিনেমার জন্য অপেক্ষা করছিলেন, সেই তুলনায় সিনেমাটি সকলের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। সিনেমাটি দর্শকরা তেমন বিশেষ পছন্দ করছেন না। এমনকি সমালোচকরাও নেতিবাচক মতামত প্রকাশ করছেন। দর্শকরা অভিনেতা বিজয় দেবরাকোন্ডার অভিনয়ের প্রশংসা করলেও অনন্যা পান্ডের দুর্বল অভিনয় নিয়ে অনেক ট্রোলড হচ্ছে। অনন্যার অভিনয় নিয়ে ক্ষুব্ধ নেটিজেনরা তাঁকে সিনেমাতে কাস্ট করা বন্ধ করার কথাও বলেছে।

সিনেমাটি মুক্তির পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ড করছেন অনন্যা পান্ডে। ব্যবহারকারীরা অভিনেত্রীকে বাজেভাবে ট্রোল করছেন। একজন টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন যে, ‘লিগার একটি খারাপ সিনেমা সেই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই, তবে সিনেমাতে অনন্যা পান্ডের খারাপ অভিনয় আমি সহ্য করতে পারিনি।’ ব্যবহারকারী এমনকি আরো লিখেছেন যে, ‘অনন্যা পান্ডেকে তেলেগু সিনেমাতে কাস্ট করা বন্ধ করুন।’ অন্যদিকে, অন্য একজন ব্যবহারকারী সিনেমাটির একটি ক্লিপ শেয়ার করেছেন এবং লিখেছেন যে, ‘বাহ কী অভিনয়। সংগ্রামের রানী। এনাকে কেউ অস্কার দিন।’

অন্য একজন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী লিখেছেন যে, অনন্যা পান্ডে অবশ্যই ভাবছেন যে, ‘লোকেরা আমাকে ঘৃণা করুক, আমি আমার জিভ দিয়ে আমার নাকে স্পর্শ করতে পারি।’ রকেট সিং নামের এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘আমার টুথব্রাশ লিগারে অনন্যা পান্ডের অভিনয়ের চেয়ে ভালো এক্সপ্রেশন দিতে পারে।’ অনন্যা পান্ডে এই প্রথমবার নয় যে, তার খারাপ অভিনয়ের জন্য ট্রোলড হয়েছেন। অনন্যা পান্ডে প্রায়ই বিতর্কের মধ্যে রয়েছেন এবং ট্রোলারদের দ্বারা লক্ষ্যবস্তু হয়েছেন। অনন্যা পান্ডে যখন করণ জোহরের সিনেমা স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার ২ দিয়ে তাঁর ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন, তখন তাঁকে স্বজনপ্রীতির পণ্যও বলা হয়েছিল।

পুরী জগন্নাদ পরিচালিত লিগার সিনেমাতে বিজয় দেবেরকোন্ডা একজন যোদ্ধার ভূমিকায় এবং অনন্যা পান্ডে তাঁর বান্ধবীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন। বাহুবলীতে শিবগামী দেবীর চরিত্রে অভিনয় করা রাম্যা কৃষ্ণান বিজয়ের মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। সিনেমাটি বিজয়ের প্রথম বলিউড সিনেমা। সিনেমাটির পারফরম্যান্স বক্স অফিসে বিশেষ সাফল্য পায়নি। ২৫শে আগস্ট সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে এবং এখনো পর্যন্ত মোট ২৫ কোটির ব্যবসা করতে সক্ষম হয়েছে।