রাতের ঘুম উড়তে চলেছে চীনের, আগামী জুলাই মাসে ভারতের হাতে আসতে চলেছে রাফাল যুদ্ধবিমান..

সম্প্রতি ভারত এবং চীনের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরমে উঠেছে। দুই দেশেই তাদের সীমান্তবর্তী এলাকায় যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর এই যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরী হওয়ার সময় ভারতের হাতে আসতে চলেছে 6 টি রাফেল বিমান। এর ফলে ভারতের সামরিক শক্তি যে আরো বেড়ে গেল তা নিঃসন্দেহে বলা যেতে পারে। তবে এই রাফেল বিমান ভারতের কাছে মে মাসের মধ্যেই পৌঁছে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার জন্য ফ্রান্স ভারতে রাফেল বিমান গুলি পাঠাতে পারেনি। খবর সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথমে চারটি রাফেল পাঠানোর কথা ছিল ফ্রান্সের কিন্তু পরে তা বেড়ে 6 টি হয়। জানা গেছে আগামী 27 জুলাই এর মধ্যেই এই রাফেল বিমান ভারতে চলে আসবে।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ভারতের কাছে রাফেল বিমান গুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ সময়ে এসেছে। কারণ বর্তমানে দুই দেশেই যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর এই সময়ে ভারতের হাতে শক্তিশালী যুদ্ধবিমান চলে এলো। তাছাড়া ভারত হুঁশিয়ারি দিয়েছে চীনকে। ভারত-চীনের কোনরকম দুঃসাহস এবার থেকে বরদাস্ত করবে না বলে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিয়েছে চীনকে। ভারতের কাছে রাফেল বিমান চলে আসায় ভারতের শক্তি অনেকগুণ বেড়ে যাবে।এছাড়াও এই এই যুদ্ধ বিমান কে কন্ট্রোল করার জন্য ভারতীয় পাইলট দের ট্রেনিং দেওয়া শুরু হয়ে গেছে।

এছাড়াও ফ্রান্সের পাশাপাশি আমেরিকা এবং রাশিয়ার দুই দেশেই ভারতকে অত্যাধুনিক অস্ত্র পাঠানোর জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। আপনাদের জানিয়ে দিই রাশিয়া ইতিমধ্যেই ভারতকে 1 বিলিয়ন ডলার যা ভারতীয় মুদ্রায় 7560 কোটি টাকার অত্যাধুনিক হাতিয়ার সাপ্লাই করেছে। কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে লাদাখ সীমান্তে পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভারতীয় সেনাদের পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছেন যেন তারা চীনের সেনাদের কড়া জবাব দিতে পারে। এছাড়াও কেন্দ্রীয় সরকার ভারতীয় সেনাদের কথা ভেবে 500 কোটি টাকার ফান্ড তৈরি করেছে।

আমেরিকা, ফ্রান্স, রাশিয়া ছাড়াও ইজরায়েল ভারতকে ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করার কথা জানিয়েছে। আপনাদের জানিয়ে দিই, কারগিল যুদ্ধের সময় ভারতকে অস্ত্র সাপ্লাই করেছিল এই ইজরায়েল। খবর পাওয়া গেছে যে, ইজরায়েলের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম যার নাম এখনো পর্যন্ত ঠিক করা হয়নি সেটিকে খুব তাড়াতাড়ি সীমান্ত রক্ষা করার জন্য ভারতে পাঠানো হবে। সম্প্রতি সীমান্তে S-400 এয়ার ডিফেন্স মোতায়েন করেছে চীন। অপর দিকে ভারত সীমান্ত রক্ষা করার জন্য এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম মোতায়েন করতে চলেছে।

Related Articles

Close