প্রশাসনের কড়া ব্যবস্থার ফলে ঘুম উড়ল সমস্ত কর্মীদের। এবার থেকে হতে চলেছে…

কর্মীরা ঠিকঠাক আসছে কিনা তা সেটাই নজরদারি রাখতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতির সাহায্য নিতে চলেছে সরকার। বালুরঘাটের জেলা প্রশাসনিক বৃহস্পতিবার বালুরঘাটে জেলা প্রশাসনিক ভবনে এ বায়োমেট্রিক পদ্ধতির দ্বারা অ্যাটেনডেন্স চালু করা হয়েছে। এই পদ্ধতি আপাতত পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা হয়েছে।কিন্তু সরকারি সূত্রে খবর খুব শীঘ্রই পাকাপাকি ভাবে চালু করা হবে কিছুদিনের মধ্যে।প্রায় দেড় বছর আগে দক্ষিণ দিনাজপুর হাসপাতাল সহ আরো অন্যান্য কয়েকটি সরকারি ক্ষেত্রে এই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে অ্যাটেনডেন্স চালু করা হয়েছিল।

কিন্তু এতদিন ধরে জেলা প্রশাসন বিভাগে পদ্ধতি চালু করা হয়নি। এই ভবনে সব মিলিয়ে মোট চারশোর মতো কর্মী রয়েছে। প্রশাসনিক ভবনে কর্মীদের নিয়ে অনেক অভিযোগ শোনা যায় যেমন দেরি করে অফিসে আসা, কোন দিন ছুটি নিয়ে নেওয়া, সময়ের আগেই অফিস থেকে বেরিয়ে যাওয়া ইত্যাদি। তার জন্যই দেরি করে হলেও শেষমেশ বায়োমেট্রিক পদ্ধতি চালু করল প্রশাসন। গত চারদিন ধরে জেলা প্রশাসন বিভাগের সমস্ত কর্মীদের আঙুলের ছাপ ওই মেশিনে ইনপুট করা হয়। বৃহস্পতিবার থেকে কর্মীরা ওই বায়োমেট্রিক মেশিন এ আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে ভিতরে ঢুকবেন আবার ছুটির সময় ও তাদেরকে আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে বেরিয়ে যেতে হবে।

প্রশাসনিক বিভাগে দুটি প্রবেশদ্বারে চারটি বায়োমেট্রিক মেশিন বসানো হয়েছে। সরকারি কর্মীদের পাশাপাশি অস্থায়ী কর্মীদের আঙুলের ছাপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তারা। তবে এখনো সমস্ত কর্মীদের মেশিনে আঙ্গুলের ছাপ ইনপুট করা হয়নি তবে প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে খুব শীঘ্রই এই কাজ 100% সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।দক্ষিণ দিনাজপুর শাখার তৃণমূল কংগ্রেসের পশ্চিমবঙ্গ সরকারি কর্মচারী সঞ্জীব মন্ডল জানিয়েছেন, ‘ সব কিছু এখন কম্পিউটারাইজড হয়ে গেছে তাই কর্মীদের হাজিরার পদ্ধতির তাও বায়োমেট্রিক হওয়ায় এতে কর্মীদের কোন অসুবিধা থাকার কথা নয়।’

Desk India

The India News Desk: Famous Bengali News Portal of India, Covers news on Indian politics, Sports, business and entertainment. Email: indiarag.com@gmail.com

Related Articles

Close