জেগে উঠেছে জনতা! YouTube-এ ডিজলাইকের বিশ্বরেকর্ড গড়লো মহেশ- আলিয়ার সড়ক 2-এর ট্রেলার..

দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে মুক্তি পেল সড়ক টু (Sadak 2) এর ট্রেলার। এই ট্রেলার যেদিন মুক্তি হওয়ার কথা ছিল তার 24 ঘন্টা পর মুক্তি পায়। আর এই সুযোগ একেবারেই ছাড়েননি নেটিজেনরা বিশেষ করে অভিনেতা সুশান্ত সিং এর ভক্তরা। ভক্তরা এই সিনেমা বয়কট করার ডাক দিয়েছিলেন বহুদিন ধরে। কিছুদিন আগে সুশান্ত সিং রাজপুতের অভিনীত দিল বেচেরার মুভির ট্রেলার (Dil bechara trailer) সবথেকে লাইক পাওয়া ভিডিও (Video) করার জন্য শপথ নেন তার ভক্তরা।

 

তেমনি আবার মহেশ ভাট (Mahesh Bhatt) পরিচালিত এই সড়ক টু মুভির ট্রেলারটি বিশ্বের সবথেকে বেশি সংখ্যক ডিসলাইক হিসেবে রেকর্ড করার প্রতিজ্ঞা নেন নেটিজেনরা। এই সড়ক-2 মুভির ট্রেলার সোশ্যাল মিডিয়ায় (social media) মুক্তি পাওয়ার 10 ঘণ্টার মধ্যে সুশান্ত সিং এর ভক্তরা তাদের ইচ্ছা পূরণ করেন। আর এদিন ইউটিউব এর ইতিহাসে সবথেকে বেশি ডিসলাইক পাওয়া ভিডিও হয় মহেশ ভাট পরিচালিত সড়ক-2 মুভির ট্রেলার। এর আগে সব থেকে বেশি ডিসলাইক পাওয়া ছবির ট্রেলার হিসেবে ছিল গোস্টবাস্টার্স। এর ডিসলাইকের সংখ্যা ছিল 1.1 মিলিয়ন।

আর সড়ক-2 মুভির ট্রেলার এ ডিসলাইক পড়েছে 3.2 মিলিয়ন। এই সংখ্যা পৌঁছেছে মাত্র 11 ঘণ্টার মধ্যে। এই ভিডিওতে লাইকের সংখ্যা পড়েছে 1 লক্ষ 99 হাজার। এই ট্রেলারে যতটা পরিমাণ লাইক পড়েছে তার থেকে 90 শতাংশ বেশি ডিসলাইক পড়েছে। মাত্র 10 ঘণ্টার মধ্যে 32 লক্ষেরও বেশি ডিসলাইক পড়েছে ভিডিওতে।প্রসঙ্গত আলিয়া ভাট কফি উইথ করণের সেটে গিয়ে সুশান্তের নামে মন্তব্য করেন। এছাড়াও মহেশ ভাট এর সঙ্গে রিয়া চক্রবর্তীর ঘনিষ্ঠতার খবর যবে থেকে উঠে এসেছে সেদিন থেকেই সুশান্তের ভক্তরা ভাট পরিবারের উপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

তাই স্বাভাবিকভাবেই সুশান্তের ভক্তদের ক্ষোভ উপচে পড়েছে এই ভিডিওতে। শুধুমাত্র মহেশ ভাট পরিচালক বলে নয় তার দুই কন্যা আলিয়া এবং পূজা অভিনয় করেছেন এই মুভিতে। 21 বছর পর মহেশ ভাটের এই কামব্যাক যে খুব একটা সহজ ছিল না তা সবাই আগের থেকেই অনুমান করেছিল। তবে সুশান্তের ভক্তরা এইভাবে জবাব দেবে তা ভাবা যায়নি। তবে আরও একটি দিক থেকে মহেশ ভাট পরিচালিত সড়ক-টু আঘাত পেয়েছে। এই সিনেমার ট্রেলার মুক্তি পাওয়ার পরে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের তরফ থেকে দাবি জানানো হয় যে, এই ছবি হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে। মহেশ ভাটের এই ছবি আগামী 28 শে আগস্ট ডিজনি প্লাস এবং হটস্টারে (Disney plus hotstar) মুক্তি পেতে চলেছে।