শুধু অভিনয় করেই নয়, আরো এই উপায় গুলিতে কোটি কোটি টাকা কামাচ্ছেন আলিয়া ভাট

একদিকে বিতর্কের শিরোনামে থাকেন তিনি, অন্যদিকে অসাধারণ অভিনয় করে সেই বিতর্ককেই পেছনে ফেলে দেন তিনি, নবাগতা এই সর্বকনিষ্ঠা অভিনেত্রী হলেন আলিয়া ভাট। এই মুহূর্তে সবথেকে সফল এবং জনপ্রিয় অভিনেত্রীর মধ্যে অন্যতম হলেন তিনি। স্টার কিড হওয়ার তকমা গায়ে নিয়েই একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিচ্ছেন তিনি সকলকে।

২০১২ সালে স্টুডেন্ট অফ দ্যা ইয়ার, সিনেমার মাধ্যম দিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন তিনি। প্রথম সিনেমায় লো আইকিউ এবং দুর্বল অভিনয়ের জন্য ব্যাপকভাবে উপহাসের শিকার হয়েছিলেন তিনি। তবে ভেঙে পড়ার মেয়ে নন আলিয়া। নিজেকে একেবারে অন্যরকম ভাবে গড়ে তুলে আরো একবার ঘুরে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি।

সফল সিনেমার কথা বলতে গেলে বলতে হবে ডিয়ার জিন্দেগি, উরতা পাঞ্জাব, গাঙ্গুবাই কাতিয়াবারি, হাইওয়ের মত চলচ্চিত্রের নাম। সম্প্রতি ৯ সেপ্টেম্বর মুক্তি পেয়েছে আলিয়া ভাট এবং রনবীর কাপুর অভিনীত সিনেমা ব্রম্ভাস্ত্র। বিবাহের পর স্বামীর সঙ্গে এই প্রথম পর্দায় অভিনয় করলেন আলিয়া। ডুবে যাওয়া বলিউডকে এই সিনেমাটি আরো একবার আশার আলো দেখাতে পারছে।

তবে শুধুমাত্র অভিনয় করে অর্থ উপার্জন করেন না অভিনেত্রী। চলচ্চিত্র ছাড়াও অভিনেত্রীর একটি পোশাকের ব্র্যান্ড রয়েছে, যা বর্তমানে ৭ থেকে ১২ বছর বয়সে শিশুদের জন্য পোশাক তৈরি করে। এই কোম্পানির বর্তমান মূল্য ১৫০ কোটি টাকা। পোশাকের ব্যান্ড ছাড়াও আলিয়া ভাট ইটার্নাল সানসাইন প্রোডাকশন হাউস, নামে একটি প্রোডাকশন হাউজের মালিক যার ব্যানারে কয়েকদিন আগে মুক্তি পেয়েছে ডার্লিংস।

এসব ছাড়াও আলিয়া ভাট nykaa ফ্যাশন ব্র্যান্ড থেকে শুরু করি phool.com – এর মতো কোম্পানিতে প্রচুর বিনিয়োগ করেন। এই সমস্ত কোম্পানি থেকে মোটা অংকের মুনাফা অর্জন করেন অভিনেত্রী। এছাড়াও বিভিন্ন ব্র্যান্ড প্রমোশন করার জন্য মোটা অংকের টাকা চার্জ করেন অভিনেত্রী আলিয়া ভাট।