প্রথম 5G নেটওয়ার্ক নিয়ে হাজির টেলিকম সংস্থা AIRTEL, মাত্র কয়েক সেকেন্ডে হবে মুভি ডাউনলোড

বিশেষ ঘোষণা করল Bharti Airtel। এয়ারটেল দেশের প্রথম টেলিকম সংস্থা যারা  হায়দ্রাবাদে একটি বাণিজ্যিক নেটওয়ার্কে 5G সার্ভিস এ সফলতা পেল।  মুকেশ আম্বানির Reliance Jio-কে টেক্কা দিয়ে 5G সার্ভিস সফল ভাবে প্রদর্শন করে দেখাল এয়ারটেল। এয়ারটেলের তরফে জানানো হয়েছে, কোম্পানির নিজস্ব এগজ়িস্টিং লিবারলাইজড স্পেক্ট্রামকে NSA (Non Stand Alone) নেটওয়ার্ক প্রযুক্তির সাহায্যে 1800 MHz ব্যান্ডে ৫জি সফল করেছে তারা।

 

Airtel বলছে, ‘এই প্রথম বার একই স্পেক্ট্রাম ব্লকে একসঙ্গে 5G ও 4G অপারেট করার জন্য ডায়নামিক স্পেক্ট্রাম শেয়ার করা হয়েছে।’ অর্থাৎ  4G নেটওয়ার্কেই 5G টেকনিক প্রদর্শন করে দেখাল Airtel।

কোম্পানির তরফে দাবি করা হচ্ছে, এই 5G সার্ভিস 10 গুণ বেশি স্পিড, 10 গুণ অধিক ল্যাটেন্সি এবং 100 শতাংশ কনকারেন্সি দিতে সক্ষম। উদাহরণস্বরূপ,  হায়দ্রাবাদে গ্রাহক 5G স্মার্টফোনের সাহায্যে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে একটি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের সিনেমা ডাউনলোড করতে পারেন। এটিই 5G সার্ভিসের বিশেষ গুণ। Airtel জানিয়েছে,  গ্রাহকেরা 5G নেটওয়ার্কের সম্পূর্ণ অভিজ্ঞতা তখনই নিতে পারবেন, যখন পর্যাপ্ত পরিমাণে  সরকারি ভাবে স্পেকট্রাম উপলব্ধ হবে।

Airtel-এর MD এবং CEO গোপাল ভিত্তল বলছেন, “আমাদের যে সব ইঞ্জিনিয়ারদের নিরলস পরিশ্রমের ফলে টেক সিটি হায়দরাবাদে প্রযুক্তির অবিশ্বাস্য ক্ষমতার প্রদর্শন করে দেখাল Airtel, তাঁদের জন্য আমি সত্যিই গর্বিত। আমাদের সমস্ত বিনিয়োগের টেস্টিং এই হায়দরাবাদ শহরে এসেই সফল হয় এবং একই সঙ্গে তার প্রভাবও সুদূরপ্রসারী হিসেবে দেখা দেয়। 5G নেটওয়ার্কের সফল প্রদর্শনের সঙ্গে Airtel একটা বিষয় প্রমাণ করে দিল যে, ভারতে উন্নতমানের প্রযুক্তির পথপ্রদর্শক একমাত্র Airtel-ই।”

সেইসঙ্গে গোপাল ভিত্তল আরও বললেন, ‘আমি বিশ্বাস করি, 5G-র উদ্ভাবনী শক্তিতে সারা বিশ্বকে শাসন করার ক্ষমতা রয়েছে একমাত্র ভারতের। আর সেই স্বপ্নকে সফল করতে হলে আমাদের অ্যাপ্লিকেশন, ডিভাইস এবং নেটওয়ার্কের নতুনত্বের উদ্ভাবনে সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আমরা এই সব দিক থেকে সাহায্য করতে প্রস্তুত।”

টেট পরীক্ষার্থীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ গাইডলাইন জারি করল প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ

Reliance Jio এবং Vi বা Vodafone Idea-র সঙ্গে 5G সার্ভিস নিয়ে প্রতিযোগিতা ছিল৷ এরপর সেই প্রতিযোগিতা হয়ত আরও বাড়বে৷ এমন  প্রশ্নে গোপাল ভিত্তলের সাফ উত্তর, ‘আমি শুধু Airtel-এর কথাই বলতে পারব, যাদের 5G নেটওয়ার্ক তৈরি হয়ে গিয়েছে। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে টেস্টিংয়েই তা সফল হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, গত বছর মুকেশ আম্বানি জানিয়েছিলেন যে, 2021 সালের দ্বিতীয় কোয়ার্টারেই ভারতে Reliance Jio-র 5G নেটওয়ার্ক চালু করা হবে ন্তাই এই পরিস্থিতিতে এয়ারটেল আর জিও এর লড়াই যে জমে উঠবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷