দেশনতুন খবরবিশেষব্যবসা

Oppo-Vivo-Mi এর রাতের ঘুম ওড়াতে বড়োসড়ো পদক্ষেপ নিতে চলেছে Airtel, এবার থেকে বাজারে সস্তা দামে মিলবে 4G স্মার্টফোন…

এতদিন পর্যন্ত বাজারে সস্তা মোবাইল ফোন হিসাবে ছিল শুধুমাত্র কয়েকটি চীনা সংস্থা যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য রয়েছে Oppo, Vivo, MI এর নাম। তবে এখন গোটা ভারতজুড়ে একাধিক চীনা পণ্য বয়কটের ডাক এর সঙ্গে সঙ্গে এই চীনা কোম্পানিগুলিও ব্যাপক ভাবে ক্ষতির মুখে পড়েছে আর এই সুযোগ কে একেবারে হাতছাড়া করতে চাইছে না ভারতীয় টেলিকম কোম্পানি Airtel। তাই ভারতীয় এই টেলিকম কোম্পানি Airtel সংস্থা Oppo, Vivo, Mi কে সরিয়ে মার্কেট দখল করার পরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছে ইতিমধ্যে এবং এই সংস্থা জানিয়েছে তারা খুব জলদি ই ভারতের বাজারে বেশ কিছু সহজলভ্য দামে 4G স্মার্টফোন আনতে চলেছে।

 

সূত্রের খবর, এই বিষয়ে বেশ কিছু স্মার্টফোন নির্মাতার সঙ্গে ইতিমধ্যে আলোচনা শুরু করে দিয়েছে এয়ারটেল সংস্থা। এর আগে রিলায়েন্স কোম্পানির তরফ থেকে স্মার্ট ফোন লঞ্চ করা হয়েছিল ভারতের বাজারে এবং তা ব্যাপকভাবে সাফল্য লাভ করেছে। তবে এবার Airtel হতে চলেছে ভারতের বুকে দ্বিতীয় টেলিকম কোম্পানি যারা ভারতের বাজারে ফোরজি স্মার্টফোন আনতে চলেছে আগামী দিনে। সূত্রের খবর এয়ারটেল সংস্থা চিন্তাভাবনা করছে লকড, আনলকড উভয় ধরনের ফোন আনার।

আপনাদের মধ্যে অনেকেই হয়তো এই লকড কিংবা আনলকড শব্দটি অর্থ বুঝলেন না তাহলে পরিষ্কার করে বলা যাক আপনাদেরকে, এক্ষেত্রে লকড ফোন বলতে সেসব ফোন গুলিকে বোঝায় যেগুলিতে শুধুমাত্র নির্মাতা সংস্থার সিম ছাড়া অন্য কোন সিম ব্যবহার করা যায় না। আর এক্ষেত্রে আনলকড ফোন বলতে সে ফোন গুলিকে বোঝায় যেগুলিতে যেকোনো কোম্পানির সিম ব্যবহার করা যায়। তবে এক্ষেত্রে আমাদের দেশে লকড ফোনের চাহিদা বেশি না থাকলেও, বিদেশে এক্ষেত্রে কিন্তু লকড ফোনের চাহিদা বেশি। যদিও এর আগে ভারতের বাজারে বেশ কিছু লকড সিম নিয়ে এসেছিল টাটা ইন্ডিকম, এমটিএস এর মতোন বেশকিছু সংস্থা তবে সেগুলি বেশি দিন চলে নি।

 

তবে শুধু Airtel’ই নয় এর পাশাপাশি আবারো বেশকিছু নতুন স্মার্টফোন আনতে চলেছে ভারতীয় টেলিকম সংস্থা রিলায়েন্স জিও। আর প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে জিও যে ফোনগুলি আনতে চলেছে আগামী দিনে সেগুলিতে ফোরজির পাশাপাশি থাকবে ফাইভ-জি কানেক্টিভিটির ব্যবস্থা। তাছাড়া কিছুদিন আগেই রিলায়েন্স জিও সংস্থার চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি ঘোষণা করেছিলেন তারা আগামী দিনে গুগলের সাথে মিলে ভারতের বাজারে প্রায় 10 কোটি স্মার্টফোন আনতে চলেছেন। এমনকি জিওর তরফ থেকে কথা বলা হয়েছে সেগুলির মূল্য অনেক কম রাখা হবে তবে সে গুলির মূল্য কম রাখা হলেও ফোনের ফিচারের সঙ্গে কোনো আপস করবে না দেশের জনগন বলে জিও ঘোষণা করেছে।

অন্যদিকে এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এয়ারটেল হোক কিংবা জিও হোক বর্তমান বাজারে সস্তা স্মার্টফোন নিয়ে আসলে তা বাজারে যথেষ্ট সাড়া ফেলবে কারন বর্তমানে দেশের সমস্ত পরিষেবা এখন ফোনের মাধ্যমে সাড়া হচ্ছে। তাছাড়া এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ব্যাপক হারে বেড়েছে মোবাইল ফোনের ব্যবহার। বর্তমান দিনে দোকান থেকে শুরু করে স্কুল-কলেজ বাজার অফিস সবকিছু এখন মুঠোফোনে বন্দী। তাই এক্ষেত্রে যদি সস্তার স্মার্টফোন সবার হাতে পৌঁছে যেতে পারে তাহলে বিশেষ করে আমজনতা এর ফলে অনেক বেশি উপকৃত হবেন।

Related Articles

Back to top button