Jio কে টেক্কা দিতে মাঠে নামছে Airtel, এই মাস থেকে শুরু হবে 5G পরিষেবা

ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম সংস্থা এয়ারটেল একটি বড় ঘোষণা করেছে। এই মাসেই দেশে ৫জি পরিষেবা চালু করতে চলেছে সংস্থাটি। এর আগে জিও ইঙ্গিত দিয়েছিল যে, তারা ১৫ই আগস্ট ৫জি পরিষেবা চালু করতে পারে। এয়ারটেল যদি জিওর আগে এই পরিষেবা চালু করে, তবে এটি এমন করা দেশের প্রথম টেলিকম সংস্থা হয়ে উঠবে। সম্প্রতি, টেলিকম সংস্থা জিও ইঙ্গিত দিয়েছে যে, তারা ১৫ই আগস্ট সারাদেশে ৫জি নেটওয়ার্ক পরিষেবা চালু করতে পারে।

এখন দেশে দ্বিতীয় টেলি বৃহত্তম টেলিকম কোম্পানি এয়ারটেল ৫জি নেটওয়ার্ক পরিষেবা চালু করার কথা ঘোষণা করেছে কোম্পানি জানিয়েছে যে আগস্টের শেষ নাগাদ পাবজি নেটওয়ার্ক পরিষেবা প্রকাশ করা হবে। এয়ারটেল আরো বলেছে যে, তারা এরিকসন, নোকিয়া এবং স্যামসাংয়ের সাথে ৫জি নেটওয়ার্ক প্রদানের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। যদি ১৫ ই আগস্ট জিওর ৫জি পরিষেবা চালু না হয়, তবে এয়ারটেল এই বিষয়ে এগিয়ে যাবে। সম্প্রতি, ৫জি স্পেক্ট্রামের নিলাম শেষ হয়েছে।

এয়ারটেলও এই নিলামের অংশ ছিল। কোম্পানীটি নিলামের ৯০০ এমএইচজেড, ১৮০০ এমএইচজেড, ২১০০ এমএইচজেড, ৩৩০০ এমএইচজেড এবং ২৬ জিএইচজেড ফ্রিকোয়েন্সিতে নিলামে ১৯৮৬৭.৮ এমএইচজেড স্পেক্ট্রাম কিনেছিল। এয়ারটেলের এমডি এবং সিইও গোপাল ভিট্টল ৫জি পরিষেবা চালু করার সম্পর্কে বলেছেন যে, “আমরা জানাতে পেরে আনন্দিত যে,এয়ারটেল আগস্ট মাসেই ৫জি পরিষেবা চালু করতে চলেছে। এই জন্য চুক্তিগুলো চূড়ান্ত করা হয়েছে।”

তিনি আরো বলেন যে, ভারতের গ্রাহকদের সংযোগের সম্পূর্ণ সুবিধা দেওয়ার জন্য সংস্থাটি সারা বিশ্বের সেরা প্রযুক্তি এবং অংশীদারদের সাথে কাজ করবে। আমরা আপনাকে বলি যে, এয়ারটেল প্রথম টেলিকম অপারেটর ছিল, যে তিনটি টেলিকম কোম্পানীতে ৫জি নেটওয়ার্ক পরীক্ষা করেছিল। সংস্থাটি একাধিক অংশীদারদের সাথে এই বিষয়ে অনেক পরীক্ষা করেছে। এটি একটি লাইভ ৪জি নেটওয়ার্কে ভারতের প্রথম ৫জি অভিজ্ঞতা দেখিয়েছে, এছাড়াও এয়ারটেল প্রথম গ্রামীন ট্রায়ালও করেছিল। কোম্পানীটি এর আগে ৫জিতে প্রথম ক্লাইউড গেমিং অভিজ্ঞতাও পরীক্ষা করেছে।