ব্রেকিং নিউজ:-ফের সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, পুলওয়ামায় জঙ্গিহানার উপযুক্ত জবাব দিলো ভারত..

পুলওয়ামা জঙ্গি হামলা বদলা নিতে শুরু করল ভারতীয় সেনাবাহিনী। ফের শুরু হলো সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। গত 14 ই ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামা সিআরপিএফ জওয়ান দের উপর হামলা চালায় জঙ্গি সংগঠন। আর এতে আত্মঘাতী জঙ্গি আদিলের আক্রমণে প্রাণ হারায় 40 জনেরও বেশি ভারতীয় সিআরপিএফ জওয়ান। যা নিয়ে শোকে কাতর হয়েছিল কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। আর সেই সময় থেকে পাল্টা বদলা নেওয়ার জন্য দাবি উঠতে শুরু করেছিল গোটা দেশজুড়ে পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা বদলা কেন নেওয়া হচ্ছে না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। আর মোদী সরকার ও যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, আর এই জঙ্গি হামলার সঠিক জবাব দিতে ভারতীয় সেনা কে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

 

তবে এর আগে ভারত সরকার কূটনৈতিক আর্থিক দিক থেকে পাকিস্তানের সাথে আগেই যুদ্ধ করা শুরু করে দিয়েছিলেন। তবে সরকারের পক্ষে চাপ দেওয়া হচ্ছিল পাকিস্তানের উপর এয়ার স্ট্রাইক করাবার।আর তারই দরুন ভারতীয় বায়ুসেনা সূত্র অনুসারে জানতে পারা গেছে মঙ্গলবার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করা হয়। সাড়ে তিনটে নাগাদ পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের ঢুকে পড়ে বায়ুসেনা মিরাজ 2000 ফাইটার বিমান নিয়ে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে পাকিস্তানি আতংবাদি ক্যাম্প গুলিতে 1000 কেজির বোমা ফেলা হয়েছে। আর বেছে বেছে হামলা চালানো হয়েছে জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গি ঘাঁটি গুলিতে। অবশেষে পুলওয়ামায় ঘটনার 12 দিন পর জবাব দিল ভারতীয় সেনাবাহিনী। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের ঢুকে জঙ্গি নিধন এর কাজ সেরে এল বায়ুসেনার অফিসার।

আর এটা বললে ব্যর্থ হবে না মোদি সরকারের জমানায় সফল হল আরেকটি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক। পাকিস্তানের কতজন শেষ হয়েছে তা কিছু সময়ের মধ্যে আমাদের কাছে আপডেট পেয়ে যাবেন।ভারতীয় বায়ুসেনা এই এয়ার স্ট্রাইক করেছে তবে এখন তো সবে শুরু আরো বড় বড় স্ট্রাইক করা হবে বলে সূত্রের খবর। তবে এই মুহূর্তে পাকিস্তানের দাবি তাদের এই এয়ার স্ট্রাইক এর ফলে কোন প্রকার ক্ষতি হয়নি। যদিও কতটা ক্ষতি হয়েছে তা দিন বাড়ার সাথে সাথে জানতে পারা যাবে। তবে এখনো পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে এই হামলার ফলে 200 থেকে 300 জন জঙ্গির মৃত্যু ঘটেছে। এই বিষয়ে আরও নতুন আপডেটের জন্য চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজ দ্যা ইন্ডিয়া নিউজ এ।