প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তৃতা শুনে এবার অনুপ্রাণিত বলিউড স্টার মিস্টার পারফেক্ট আমির খান।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রশংসায় এবার বলিউড অভিনেতা আমির খান। 19 তারিখে অর্থাৎ শনিবার দিন ভারতীয় সিনেমার জাদুঘরের উপস্থিত ছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেখানে আমির খান তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন। ওই জাদুঘরে উদ্বোধক ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি। সেখানে তিনি বক্তব্য দেওয়ার পরেই এ মন্তব্য শোনা যায় অভিনেতা আমির খানের মুখ থেকে। প্রায় চার বছর আগে আমির খান বলেছিলেন এই দেশে তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তার স্ত্রী আতঙ্কিত রয়েছে তাই তিনি দেশ ছেড়ে বাইরে চলে যেতে চাইছিলেন। মোদি সরকারের আমলে দেড় বছরের মাথায় এই নামকরা অভিনেতার মুখে এমন মন্তব্য শুনে হইচই পড়ে গিয়েছিল গোটা দেশজুড়ে।

সেই সময় অনেকে যেমন আমির খানের সমর্থন করেছিলেন তেমনি আমির খানের সমালোচনায় অনেকে সরব হয়েছিলেন। আবার অনেকে বলছিলেন দেশে বাক- স্বাধীনতা রয়েছে বলে আমির খান এমন মন্তব্যের সুযোগ পেয়েছেন। এর ফলে শনিবারে আমির খানের এইরকম মন্তব্যের কারণে আবার নতুন করে দেশজুড়ে হইচই শুরু হয়ে যায়। এর কারণ হল সেই সময় আমির খানের ওই মন্তব্যের সবাই মোদি সরকার কে আক্রমণ করছে এটাই ভেবেছিল। ফলে এখন হঠাৎ করে তিনি মোদির প্রশংসায় কেন পঞ্চমুখ হলেন? এটাই প্রশ্ন সবার কাছে।তবে আমির খানের বক্তব্যে এটুকুই স্পষ্ট যে তিনি শনিবারের ঘটনার ওপরেই এমন মন্তব্য করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সিনেমার জাদুঘরের উদ্বোধন এর পরেই ওখানে বক্তৃতা দেন। তারপর এ নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন আমির খান।


এর জবাবে বলিউডের অভিনেতা আমির খান বলেন, ” ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর এই ইতিবাচক চিন্তা ভাবনা দেখে খুবই ভালো লাগলো আমার। অনুপ্রাণিত হওয়ার মতো একটি বক্তৃতা শুনতে পেলাম খুবই ভালো লাগলো।” মুম্বাইয়ে ওই অনুষ্ঠানে হাজির ছিল বলিউড ইন্ডাস্ট্রির প্রায় সবাই। অধিকাংশ কলাকুশলীদের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদী আলাদা ভাবে কথা বলেন। সেই কথাবার্তা সম্পর্কে বলিউডের অনেকেই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। এমনকি অনেকে ট্যুইট করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রি-ট্যুইট ও করেছেন।