রাজনীতির পর এবার ক্রিকেটে অধিপত্য বিস্তার করতে চলেছে BJP, শুরু করতে চলেছে নতুন ক্রিকেট লিগ

বর্তমানে ভারতের মধ্যে খেলার প্রতি একটি আলাদা চাহিদা করা গেছে। বর্তমানে ভারতবর্ষে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উঠে আসছে যথেষ্ট পারদর্শী খেলোয়াড়েরা। তাই এবার এই খেলার প্রতি আগ্রহ দেখাবে বিজেপি সরকার। বিজেপি ৩৭০ ধারার নামে একটি স্পোর্টস লিগ শুরু করতে চলেছে। যে ঘটনাটি শুরু হওয়ার কথা চলছে গুজরাটে। কেন্দ্রীয় সরকার দুই বছর আগে ৩৭০ ধারার অধীনে জম্মু ও কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করেছিল। যদিও বিজেপির অনেক মহলে তা এখনও প্রতিধ্বনিত। বলা হয়েছে যে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সংসদীয় এলাকা গুজরাটের গান্ধীনগরে এই লিগের আয়োজন করা হবে এবং এতে ক্রিকেট ও কাবাডির মতো খোলাগুলি অনুষ্ঠিত হবে।

বিজেপি ৩৭০ ধারা নামে স্পোর্টস লিগটির নামকরণ করেছে ‘গান্ধীনগর লোকসভা প্রিমিয়ার লীগ ৩৭০’ (GLPL ৩৭০)। এই স্পোর্টস লিগটির প্রধান উদ্দেশ্য হলো রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আরো বেশি যুবকদের খেলার সঙ্গে যুক্ত করা।আহমেদাবাদ শহরের বিজেপি ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক জিতুভাই প্যাটেলের মতে, “এই লিগের নামকরণ করা হয়েছে ৩৭০ ধারার নামে, যা অমিত শাহের নেতৃত্বে ২০১৯ সালে বাতিল করা হয়েছিল। টুর্নামেন্টটি ডিসেম্বরের মাঝামাঝি শুরু হওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।”

এক বিশেষ সূত্রের খবর অনুযায়ী, বিজেপি লিগে ক্রিকেট এবং কাবাডির জন্য প্রতিটি ওয়ার্ড থেকে দুটি দল (একটি ক্রিকেট এবং একটি কাবাডি দল) নির্বাচন করার কথা ভাবনা চিন্তা করা হচ্ছে। আর এই দলগুলি নির্বাচন করা হবে সাতটি বিধানসভার আসন থেকে। আর সেই সাতটি আসনগুলি হল ভেজালপুর, ঘাটলোদিয়া, নারানপুরা, সবরমতি, কালোল, গান্ধীনগর (উত্তর) এবং সানন্দ।

বর্তমানে শুধু পুরুষদের জন্য এই লিগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপগুলি এর বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যবহার করা হবে, যা এটি প্রচার করবে। ২০০৭ সালে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (GCA) এর সাথে যুক্ত হন। রাজ্য ক্রীড়া ফেডারেশনে কংগ্রেস নেতাদের ১৬ বছরের আধিপত্যের অবসান ঘটাতে তিনি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। নরেন্দ্র মোদি যখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, তখন অমিত শাহ জিসিএর সহ-সভাপতির পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তার ছেলে জয় শাহ বর্তমানে বিসিসিআই-এর সেক্রেটারি।