চাপ বাড়ল মধ্যবিত্তদের! প্ল্যাটফর্ম টিকিটের মূল্য বৃদ্ধির পর এবার ৩ গুন বৃদ্ধি পাচ্ছে লোকাল ট্রেনের টিকিট

সম্প্রতি ভারতীয় রেল মন্ত্রক থেকে একটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে যে, এবার থেকে লোকাল ট্রেনের টিকিটের মূল্য ১০ টাকা থেকে বেড়ে ৩০ টাকা করা হল। এর সাথে বাড়ানো হলো প্লাটফর্ম টিকিটের মূল্য। আর এই নিয়ম লাগু হচ্ছে আজ অর্থাৎ ৫ মার্চ মধ্যরাত থেকে। গত বছর থেকে করোনার সংক্রমনের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য সমগ্র দেশের লোকাল ট্রেন সহ দূরপাল্লার ট্রেন সবই বন্ধ ছিল। করোনার সংক্রমণ কিছুটা কমার জন্য ট্রেন পরিষেবাকে আবার অনেকটাই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনা হয়। কিন্তু করোনার সংক্রমণ সাম্প্রতিককালের আবারও ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে।

 

তবে শুধু লোকাল ট্রেন নয় বাড়ানো হল প্লাটফর্ম টিকিটের মূল্য। মানুষ আগে তাঁদের আত্মীয়-স্বজনদেরকে ট্রেনে তোলার জন্য যখন প্লাটফর্মে আসতেন। তখন প্লাটফর্ম টিকিটের মূল্য বাবদ খরচ করত ১০ টাকা। এখন সেই টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন গুণ অর্থাৎ ৩০ টাকা।

কিন্তু সাম্প্রতিককালে ক্রমশ করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর করোনার সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার জন্যই কেন্দ্রীয় সরকার লোকাল ট্রেনের ভাড়া বাড়ানো এবং প্লাটফর্ম টিকিটের মূল্য বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। টিকিটের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে সাধারণ মানুষ ট্রেন এবং স্টেশনের প্ল্যাটফর্মকে এড়িয়ে চলবেন। ট্রেন পরিষেবা এবং ট্রেনের প্লাটফর্মে যদি বেশি মানুষ জমায়েত না হয় সেক্ষেত্রে করোনার সংক্রমণ কমতে পারে বলে ধারণা কেন্দ্র সরকারের।

বর্তমানকালে বাজারের প্রতিটি জিনিসের মূল্য ঊর্ধ্বমুখী। চাল, শাকসবজি সবকিছু পাওয়া যাচ্ছে চরা দরে। আবার এদিকে সাধারণ মানুষের হেঁসেলে আগুন দিতে চলে এসেছে রান্নার গ্যাসের বৃদ্ধি পাওয়া মূল্য। দিনে দিনে আবার পেট্রোপণ্যের দাম বেড়ে চলেছে। ঠিক এই মুহূর্তে আবার রেলমন্ত্রী টিকিটের মূল্য বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করেছে। এইসবকিছু নিয়েই সাধারণ মানুষের পকেটে পড়েছে টান। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির বাজারে খুবই সমস্যার মধ্যে দিন যাপন করতে হচ্ছে এই সাধারণ মানুষকে।

টিকিটের মূল্য বৃদ্ধি করার কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোভিড- 19কে দেখিয়েছেন। নেটিজেনদের একাংশের মতে টিকিটের মূল্য বৃদ্ধি করার জন্য করোনাকে ফায়দা হিসেবে তুললেও করোনার সংক্রমণ যখন কমে যাবে তখনই দেখা যাবে যে রেল কর্তৃপক্ষ এই টিকিটের মূল্য কতটা কমায়।