কেন বিয়ের পরেও শাঁখা সিঁদুর পরছেন না ত্বরিতা, জবাব দিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়

সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন একটা সপ্তাহও  হয়নি এখনো। তার মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হতে হল অভিনেত্রী ত্বরিতা চট্টোপাধ্যায়কে৷  বিয়ের পর তার  সাজ পোশাক নিয়ে প্রশ্ন ওঠে৷ তিনি চুপ করে থাকেন নি৷  ট্রোলারদের জবাব দিয়েছেন অভিনেত্রী।

ত্বরিতা  ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আমার ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা সকলের উদ্দেশে বলা, প্লিজ কেউ শাঁখা-পলা-সিঁদুর নিয়ে জ্ঞান দেবেন না। আমি আবার এত জ্ঞানী হতে চাই না। গুণী হলেই চলবে’।

বিয়ের পরপরই স্বামী সৌরভ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একটি বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন ত্বরিতা। অনুষ্ঠান বাড়িতে গিয়ে নিজের কয়েকটি ছবি পোস্ট করেন নববধূ। হলুদ গোলাপি পাড়ের শাড়ি আর খোলা চুলে সেজেছিলেন৷  মাথায় সিঁদুর থাকলেও, হাতে শাঁখা-পলা ছিল না তাই কেউ কেউ  কটাক্ষ এবং তির্যক মন্তব্য করেন৷

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে কাকে চাইছেন‌ রাজ্যবাসী, বেরিয়ে এল সমীক্ষার ফলাফল

তিনি বলেন, “আমি এ সব নিয়ে কিছু ভাবি না। আজ অবধি শাঁখা, পলা, সিঁদুর পরেও সব বিয়ে টেকেনি। কেউ যদি গ্যারান্টি দিতে পারে এগুলো পরলেই বিয়ে টিকে যাবে, তা হলে নিশ্চয়ই পরব। মানুষ সাজপোশাকে আধুনিক হলেও, মানসিকতায় পরিবর্তন আনতে পারেনি।”

ত্বরিতা মনে করেন, বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রী, দু’জনের জীবনেই পরিবর্তন ঘটে। তাই শুধু মেয়েদেরকেই সাজপোশাক বদলাতে হবে কেন?   তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। পরিবার থেকেও এ ধরনের নিয়ম মানার জন্য কোনো চাপ দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন ত্বরিতা।  তাই সব খারাপ কথা উড়িয়ে নতুন জীবন আর কাজ নিয়ে ব্যস্ত অভিনেত্রী ত্বরিতা চট্টোপাধ্যায়।