বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ফের শোকের ছায়া, মাত্র ৪০ বছর বয়সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা

আবার এক নক্ষত্র পতন হলো বলিউডে । চলে গেলেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা সিদ্ধার্থ শুক্লা। সূত্র মতে জানা যায় এই দিন সকালে তাঁর নিজের বাড়িতেই হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় এই অভিনেতার । তাকে সাথে সাথেই নিয়ে যাওয়া হয়েছিল মুম্বাইয়ের কুপার হাসপাতালে । কিন্তু সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন । মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল মাত্র ৪০ বছর ।প্রাথমিকভাবে অনুমান করা যাচ্ছে বাড়ি থেকে হাসপাতালে যাওয়ার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়। বুধবার রাত্রে রোজকার মতো তিনি ঘুমোতে যাওয়ার সময় ওষুধ খেয়ে শুতে যান। চিকিৎসকদের প্রাথমিক অনুমান ঘুমের মধ্যেই তার হার্ট অ্যাটাক হয়।

প্রথম জীবনে মডেল হিসেবে তিনি তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন । পরবর্তীকালে বেশ কয়েকটি হিট মেগাসিরিয়াল তিনি অভিনয় করেন । তাঁর অভিনয় করা সিরিয়াল গুলির মধ্যে বালিকা বধূ সিরিয়াল টি অত্যন্ত জনপ্রিয় হয় । এর মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মনে পাকাপাকি জায়গা করে নেন। বিগ বস সিজন ১৩ বিজয়ী ছিলেন সিদ্ধর্থ শুক্লা.।তাঁর ক্যারিয়ারের গ্রাফ পাল্টে দিয়েছিল বিগ বস। বিজয়ী হওয়ার পর জনপ্রিয়তার অন্য মাত্রায় পৌঁছে যায়।

তরতাজা এই ৪০ বছরের যুবক অভিনেতার মৃত্যুতে কার্যত হতবাক গোটা মুম্বাই । প্রাথমিকভাবে জানা গেছে প্রতিদিনকার মত ওই দিন রাত্রে ঘুমাতে যাওয়ার আগে তিনি একটি ঔষধ খান । এবং তারপরই রাত্রে তিনি হূদরোগে আক্রান্ত হন। একজন অভিনেতা হিসাবে তিনি যেমন জনপ্রিয় ছিলেন তেমনি সহ অভিনেতাদের সঙ্গেও তার সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো ছিল ।অনেক মেগাসিরিয়াল করলেও বালিকা বধূ হয়েছিল তার ক্যারিয়ারে সবথেকে হিট সিরিয়াল । সিরিয়ালে মূল চরিত্র আনন্দের দ্বিতীয় স্বামীর চরিত্র তাকে দেখা গেছে । এই চরিত্রটি করার পর তাঁকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি ।২০১৪ সালের হামটি ‘শর্মা কি দুলহানিয়া’ ছবিতে আলিয়া ভট্ট এবং বরুণ ধাওয়ানের সাথে তাঁকে স্ক্রিন শেয়ার করতে দেখা যায়।

 

বেশকিছু রিয়্যালিটি শোতেও তিনি সঞ্চালকের ভূমিকায় ছিলেন। ‘সাবধান ইন্ডিয়া’, ‘ইন্ডিয়ান গট ট্যালেন্ট’ এর মত কিছু রিয়েলিটি শোতে তিনি সফল হবে সঞ্চালকের ভূমিকা পালন করেন। বিগবসে জয়ী হওয়ার সাথে সাথে তাঁকে নিয়ে আলোচনা হয়েছিল। তাসত্বেও তাঁর এই অকাল প্রয়াণে কার্যত স্তব্ধ সমগ্র নেটাগরিক।