৩৮ বছর ধরে পড়ে থাকা চুক্তি অবশেষে বড় ঝাটকা দিয়ে চীনের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিল ভারত

করোনা থেকে ডেল্টা, এখন আবার ওমিক্রণ, সবকিছুই হচ্ছে চীনের দয়ায়। তবে চীন হয়তো কোনোদিন ভাবতে পারেনি, যে ক্ষতি সে সকলের করেছে, তার জন্য তাকে সারা জীবন খেসারত দিয়ে যেতে হবে। এবার চীনকে আরো একবার ঝটকা দিয়ে ভারত এবং শ্রীলঙ্কার সম্পর্ক উন্নতি হতে শুরু করেছে। শ্রীলংকাতে দূষিত জৈব সার পাঠানোর পর থেকে চীন ও শ্রীলংকার মধ্যে সম্পর্ক খারাপ হয়ে গিয়েছে। এখন খবর আসছে, শ্রীলংকা আনুষ্ঠানিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ত্রিনকোমালি তেল ট্যাঙ্ক প্রকল্পে ধারাবাহিকভাবে ভারতকে সীলমোহর দিয়ে দিয়েছে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারত এবং শ্রীলঙ্কা যৌথভাবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে নির্মিত এই তেল ট্যাঙ্ক কমপ্লেক্স পুনঃ নির্মাণ করবে। শ্রীলংকার সরকার ভারতের সঙ্গে একত্র হয়ে এই তেল ট্যাঙ্ক প্রকল্প নির্মাণের অনুমোদন দিয়েছে। শ্রীলংকা সরকার কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ ত্রিনকোমালি তেল ট্যাঙ্ক কমপ্লেক্সের বিষয় ভারত সরকারের সঙ্গে তিনটি চুক্তি করার পর যৌথ উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে সম্মত হয়েছে।

সরকারের তরফ থেকে এক প্রেস বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সোমবার অনুষ্ঠিত বছরের প্রথম বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত ভারত এবং শ্রীলঙ্কা কূটনৈতিক মাধ্যমে যৌথ উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে। মন্ত্রীসভা ত্রিনকোমালি তেল ট্যাঙ্ক কমপ্লেক্সের ২৪টি তেল ট্যাঙ্কার সিলন পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন এবং ১৪টি তেল ট্যাঙ্কার ভারতীয় তেল কোম্পানির একটি স্থানীয় সহায়ক সংস্থাকে বরাদ্দ করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ৬১ টি তেল ট্যাংকারের মধ্যে যেগুলো বাকি থাকবে সেগুলিকে স্থানান্তরিত করা হবে ক্লিনকো পেট্রোলিয়াম টার্মিনাল প্রাইভেট লিমিটেডের কাছে। শীঘ্রই এই প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর করা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রায় ৩৫ বছর ধরে এই চুক্তি আটকে ছিল। দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা কংগ্রেস যে কাজ করে উঠতে পারেননি, সেই কাজ করে দেখালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।