আজ থেকে ৮৫ বছর আগে লুপ্তপ্রায় প্রাণীর দেখা মিললো আবারো, সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল ছবি

আমরা এর আগে অনেকবারই শুনেছি যে পশুগুলি এই পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত প্রায় হয়ে যায় তারা আর কখনো ফিরে আসেনা। কিন্তু এই ধারণাকে এবার ভুল প্রমাণ করে দিল অস্ট্রেলিয়ার (Australia) তাসমানিয়ার মানুষেরা। ১৯৩৬ সালে সমগ্র অস্ট্রেলিয়া থেকে তাসমেনিয়ার বাঘ বিলুপ্ত হয়ে যায়। কিন্তু সাম্প্রতিককালে এটাকে আবার দেখা গেছে বলে শোরগোল বেঁধে যায়।

এখানে যে বিলুপ্ত এই তাসমেনিয়ার বাঘ (Tasmanian Tiger) নামের এই প্রাণীটি দেখতে অর্ধেক বাঘ এবং অর্ধেক কুকুরের মত। একসময় সমগ্র অস্ট্রেলিয়া জুড়েই এই প্রাণীটিকে দেখা যেত। তারপর আস্তে আস্তে এটি বিলুপ্ত হয়ে যায়। এই প্রাণীটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয় ১৯৩৬ সালে।

সম্প্রতি গোটা বিশ্বের শোরগোল পড়ে যায় যে এই প্রাণীটির আবার দেখা পাওয়া গেছে। এই প্রাণীটির একটি বড় পরিবার রয়েছে। এমনকি তাদের বাচ্ছাও রয়েছে এখন পৃথিবীতে। তবে মনোবিজ্ঞানীরা এই ঘটনাকে মিথ্যাচার বলেছেন।

তবে এর আগেও বিলুপ্ত কিছু প্রাণীকে দেখা যায় কিন্তু তার রহস্য খুঁজে পাওয়া সম্ভব হয় না। ২০০৫ সালের দিকে ডাব্লুডাব্লুএফের ( WWF ) ক্যামেরায় দেখা গেছিল উড়ন্ত মাংসাশী এক কাঠবিড়ালিকে। যার রহস্য আজও খুঁজে পাওয়া যায়নি। ১৮৪০ সালে নিখোঁজ ব্ল্যাক ব্রয়েলড জীবটিকে আবার ধরা গেছিল ইন্দোনেশিয়ায়।

১৯৩০ সালে শেষ বারের জন্য তাসমেনিয়ায় বাঘকে অস্ট্রেলিয়ার তাসমেনিয়ায় দেখা যায়। এই বাঘটি প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে গেলে তার ওজন দাঁড়ায় ১২ থেকে ২২ কেজি পর্যন্ত। এই পশুটি লম্বায় ৩৯ থেকে ৫১ ইঞ্চি, উচ্চতায় ছিল ২০ থেকে ১৬ ইঞ্চি। এটি অত্যন্ত হিংস্র এবং মাংসাশী প্রাণী। ঝোপঝাড় বা গাছের গুঁড়িতে গর্ত করে এরা লুকিয়ে থাকত।