রাজ্য থেকে ৫০ হাজার বেকার যুবক যুবতীদের দেওয়া হবে ১ লক্ষ টাকা করে সাহায্য, কিভাবে করবেন আবেদন জানতে…

লোকসভা ভোট সামনে আসায় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার বেকারদের কর্মসংস্থানের জন্য আরও উদ্যোগী হয়ে উঠেছে। পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য বাজেট অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র ২০১৯ এর রাজ্যের বাজেটে এক স্বনির্ভর প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন। যে স্বনির্ভর প্রকল্প জানানো যাইতেছে যে, এককালীন প্রতিবছর ৫০ হাজার জনকে ১ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেবে রাজ্য সরকার। নতুন পেশোয়া বাজেটে গ্রুপ সি ও গ্রুপ ডি এর কর্মচারীদের ভাতা ২ হাজার টাকা করে বৃদ্ধি করা হয়েছে। এছাড়াও এতদিন পর্যন্ত চুক্তি প্রাপ্ত কর্মচারীরা ৬০ বছর পর রিটার্ড হওয়ার সময় দু লক্ষ টাকা করে পেতেন। আর অর্থমন্ত্রী এই দু লক্ষ টাকা থেকে বাড়িয়ে কর্মচারীদেরকে তিন লক্ষ টাকা করে দেওয়ার বিল পাস করেছেন।

 

 

 

 

 

শুধু তাই নয় , চুক্তিবদ্ধ কর্মীরা অর্থাৎ গ্রুপ ডি- তে যারা কর্মী আছেন তারা যদি মাধ্যমিক পাস হয়ে থাকেন এবং তিন বছরের অধিক যদি তাদের কাজ করার সময় সীমা হয় তাহলে তারা গ্রুপ সি এর সমতুল্য মাসিক বেতন পাবেন। এছাড়াও আশা ও অঙ্গন বাড়ি কর্মীদের বেতন এই ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই ৫০০ টাকা করে বাড়ানো হয়েছে । এর দরুন উপকৃত হয়েছেন এক লাখের অধিক আঙ্গনওয়াড়ি ও আশা কর্মীরা। বাজেটে প্রতিবছর কিছু না কিছু ঘোষণা হয়ে থাকে যেমন বিগত বছরে রূপশ্রী প্রকল্প এবং তারও আগে কন্যাশ্রী প্রকল্পের ঘোষণা করা হয়েছিল। যদিও এই এক লক্ষ টাকা করে দেওয়ার প্রকল্পটির এখনো পর্যন্ত কোন নাম দেওয়া হয়নি । তবে কিছুদিন আগে “স্বামী বিবেকানন্দ কর্মসংস্থান স্বনির্ভর” প্রকল্প যেটি শুরু করা হয়েছিল সেটিও বন্ধ করা হবে না,চালু থাকবে।আর এই পরিকল্পনার দরুন যদিও ৬৫% ব্যাংক থেকে খুব নিম্ন করে ঋণ দেওয়া হয় এবং ৩০% রাজ্য সরকার দিয়ে থাকে । বাকি ৫ % অর্থ সুবিধা প্রাপকের।

 

 

 

 

এছাড়াও এই প্রকল্পের ক্ষেত্রে, একজনের ক্ষেত্রে হলে দেড় লক্ষ টাকা এবং গ্রুপে নেওয়া হলে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত সরকার সাহায্য করে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দেয়। আর আগত নতুন প্রকল্পের দরুন প্রতিবছর ৫০০০০ জন নতুন যুবক-যুবতী নিজের পায়ে দাঁড়াবার চেষ্টা করতে পারবে। কিছুটা হলেও কর্মসংস্থানের দিক থেকে রাজ্য সরকারের এই পদক্ষেপ বেকারদের জন্য কার্যকারী হয়ে উঠবে। অর্থমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বাজেটে এই প্রকল্পটির বিল পাস করে দেওয়া হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই এই প্রকল্প সূচনাও করা হবে। এই প্রকল্পের নিয়ে আরো যাবতীয় নতুন আপডেটের জন্য চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পোর্টালটিতে।

 

 

 

এবারের আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ ঘােষণা রয়েছে বকেয়াভ্যাট , সিএসটি , এন্ট্রি ট্যাক্সেছাড় ইতিমধ্যে চালু আছে । এখনভার্ট , সিএসটি – র ক্ষেত্রে বকেয়ার ৩৫শতাংশ দিয়ে বিরােধ মেটানােযাবে৷ এন্ট্রি ট্যাক্সের ক্ষেত্রে জরিমানা ও সূদ মাফকরা হয়েছে । গাড়ির বকেয়াকরের ক্ষেত্রে ৩৫ অথবা ৫০শতাংশ অর্থ দিয়ে বিরােধ মেটানাে যাবে । এখানে কোনও জরিমানা দিতে হবে না । চা বাগানগুলিকে আগামী দুটি আর্থিবছরের জন্য শিক্ষা সেসও গ্রামীণ কর্মসংস্থান সেস দেওয়া থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে ।

keya Mondal

Keya Mondal, follower of truth, student of politics and governance.Graduted in Sanskrit . Email: keyamondal.india@gmail.com

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close