দাদার বায়োপিকে যে ৫ টি বলিউড তারকা মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে পারেন। তাদের নাম এল প্রকাশ্যে…

আমরা হয়তো অনেকেই জানি ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন কে নিয়ে এক বায়োপিক তৈরি করেছিলেন একতা কাপুরের বালাজি টেলিফিল্মস। ভারতের এই প্রাক্তন অধিনায়ক সফল কিন্তু বিতর্কিত এটাই তুলে ধরা হয়েছিল ওই বায়োপিকে । সিনেমার পর্দায় আজ্জুর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ইমরান হাশমি। এবার ভারতের আরেক সফল ও বিতর্কিত প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলীকে নিয়ে বায়োপিক তৈরি করার কাজ চলছে। এই বায়োপিক টিও বালাজি টেলিফিল্মস প্রযোজনা করবে।2016 সালে আরো একজন অন্যতম সেরা ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কে নিয়ে বায়োপিক তৈরি করা হয় – “এমএস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি।” মহেন্দ্র সিং ধোনি যে কতটা সফল অধিনায়ক তা আমার বলার অপেক্ষা রাখে না। মহেন্দ্র সিং ধোনির আগে সৌরভ গাঙ্গুলী ছিলেন ভারতের সর্বকালের সেরা অধিনায়ক। আবার সৌরভ গাঙ্গুলীর আগে মোহাম্মদ আজারুদ্দিন এই ছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সেরা অধিনায়ক। এই ভারতীয় ক্রিকেট দলের সেরা তিন অধিনায়ক এর মধ্যে দুই অধিনায়কের বায়োপিক অলরেডি তৈরি হয়ে গেছে, শুধু এবার বাকি রয়েছে দাদার বায়োপিক। খবর পাওয়া যাচ্ছে আগামী দিনে সিনেমা এবং ক্রিকেটপ্রেমীদের এ বায়োপিক উপহার দিতে চলেছে বালাজি টেলিফিল্মস।

এমএস ধোনির বায়োপিকে অভিনয় করেছিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত এবং মোহাম্মদ আজহারউদ্দিনের বায়োপিকে অভিনয় করেছিলেন ইমরান হাসমির। কিন্তু দাদার বায়োপিকে কে অভিনয় করবে তা নিয়ে চরম কৌতুহল বাড়ছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। এর কারণ হলো দাদার মতো  ব্যক্তিকে হুবহু সিনেমা জগতে ফুটিয়ে তোলা খুবই কঠিন কাজ বলে মনে করছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সৌরভ গাঙ্গুলীর সাথে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অনেক স্মৃতি জড়ানো রয়েছে। তার ছোটবেলা থেকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হওয়া পর্যন্ত অনেক কষ্টের পথ অতিক্রম করেছিলেন তিনি। তার নামের সঙ্গে অনেক বিতর্ক জড়িয়েছে। তার হাত ধরেই গ্রেগ চ্যাপেলের ইন্ডিয়া টিমে আগমন হয়েছে। দাদার চরিত্রে যে অভিনয় করুক তাকে এই কথাটা মাথায় রাখতে হবে ভারতীয় ক্রিকেটের ইতিহাসে দাদার জনপ্রিয়তা কম নেই। আমরা হয়তো অনেকেই জানি লর্ডসের বেলকুনিতে জার্সি খুলে ঘোরানোর ক্ষমতা শুধুমাত্র দাদারই হয়েছিল।
দাদার বায়োপিকে যে সমস্ত নায়করা অভিনয় করতে পারেন-

5. অভিষেক বচ্চন :এই তালিকায় অভিষেক বচ্চন কে দেখে অনেকে অবাক হতে পারেন যে দুটি ভিন্ন ভিন্ন পেশার ব্যক্তি সাথে কী করে মিল হতে পারে? কিন্তু দাদা যেমন তার জীবনে অনেক স্ট্রাগল এর মধ্য দিয়ে এই জায়গায় পৌঁছেছেন তেমনি অভিষেক বচ্চনও অনেক স্ট্রাগল করে ওই জায়গাতে পৌঁছেছেন। তাই দাদার চরিত্রে অভিষেক বচ্চন নিজের মতো করে অভিনয় করতে পারবেন বলে অনেকে মনে করছেন।


4. অক্ষয় কুমার : ইনি বলিউডে টিকে আছেন নিজের অভিনয় ক্ষমতার জোরে। অভিনয়ে অক্ষয় কুমারের প্রচুর দক্ষতা রয়েছে। এর আগেও তিনি অনেক কঠিন কঠিন চরিত্রে অভিনয় করেছেন এবং তাদের ফ্যানদের অনুপ্রাণিত করেছেন। তাই সৌরভ গাঙ্গুলির চরিত্র অক্ষয় কুমার অভিনয় করলে দর্শকদের মন জয় করে নিতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ এই রকমই চ্যালেঞ্জেই রোল অক্ষয় কুমার করতে ভালোবাসেন।


3. রানবির কাপুর:-বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে রানবির কাপুরের ও জনপ্রিয়তা প্রচুর রয়েছে। যদি সৌরভের ক্যারিয়ারের সময় তার বয়স এর দিকটা ভেবে দেখা হয় তাহলে রানবির কাপুর একেবারে মানানসই হবে এই চরিত্রে। কাপুর ফ্যামিলি এই ছেলে এখন অভিনয় অনেক দক্ষ হয়ে গেছে। রণবীরের অনেক ছবি দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন। রাণবীরের মধ্যে যেমন লাজুক ভাব রয়েছে তেমনি আক্রমণাত্মক ভাবটাও ফুটিয়ে তোলার ক্ষমতা রাখে। সব দিক থেকে বিচার করে দেখতে গেলে দাদার চরিত্রে রানবির কাপুর এর অভিনয় করার চান্স অনেকটাই। তারপর তার অ্যাক্টিং এর দক্ষতা আমরা সঞ্জু মুভি তে দেখতে পেয়েছি।

2. শাহরুখ খান:-বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এনার জনপ্রিয়তার সম্পর্কে যতটাই বলা হয় ততটাই কম। ছোট থেকে বড় সবাই জানেন ইনি হলেন বলিউড ইন্ডাস্ট্রির সর্বকালের সেরা অভিনেতা। এনার প্রতিভার সম্পর্কেও কিছু বলার নেই। ইনার জনপ্রিয়তায় দেখে বোঝা যায় তিনি কতটা দক্ষ। আইপিএলে টিম চালনা করার ক্ষেত্রেও তিনি যেমন পারদর্শী,তেমনি প্রতিটি ক্রিকেটারের চালচলন ও ভঙ্গিমা তিনি খুব ভালো বুঝতে পারেন। আর দাদার সাথে শাহরুখ খানের অনেক দিনের পরিচয়।এমনকি শাহরুখ খান যে টিম এর কর্ণধার সেই টিমের হয়ে দাদা কয়েকবছর খেলেছেন। ফলে দাদার জীবন সম্পর্কে অনেক কিছুই জানতে পারেন শাহরুখ খান। তাই দাদার চরিত্রে এই কিং খান অভিনয় করতে পারেন।


1. রাজকুমার রাও:-আপনারা হয়তো অবাক হচ্ছেন এত বড় বড় তারকাদের ভিড়ে এই নায়কের নাম এল কী করে? সবারই মনে এখন প্রশ্ন উঠছে সৌরভ গাঙ্গুলীর মতো একটা চরিত্রে এই অভিনেতা কী অভিনয় করতে পারবেন? তবে বলে রাখি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি তার অভিনয় দ্বারা আলাদা জায়গা করে নিয়েছেন। দাদা যেমন একজন অধিনায়ক হিসেবে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তেমনি আবার অন্যদিকে তিনি মাটির মানুষ ঠিক এই রকমই ব্যক্তিত্বে কিছুটা মিল রয়েছে রাজকুমার রাও এর সাথে। তাই বড় বড় তারকাদের মাঝে তারও জায়গা রয়েছে।