ভ্যাকসিন নেওয়ার পর অসুস্থ ৩ জন, বন্ধ দুর্গাপুরে টিকাকরণ কর্মসূচি

কোভিড ভ্যাকসিনের টিকা নেওয়ার পর অসুস্থ  তিন স্বাস্থ্যকর্মী। দু’জনকে মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  দুর্গাপুর নগর নিগম এলাকায় সৃজনী প্রেক্ষাগৃহে চলছিল কোভিড টিকা দান । গত ১৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে  এই টিকাদান কর্মসূচি। বৃহস্পতিবার দুপুরে দুজন স্বাস্থ্যকর্মী দীপা গড়াই এবং  পূর্ণিমা হাজরা অসুস্থ হয়ে পড়েন টিকা নেওয়ার পর । তারপর জানা যায় আরও একজন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। টিকা নেওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই তাদের শ্বাসকষ্ট হয় এবং সারা  শরীরে এলার্জি বেরিয়েছে । বর্তমানে মহকুমা হাসপাতালের আই সি ইউ তে ভর্তি রয়েছেন৷

আপাতত টিকা দান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে  দুর্গাপুরে। নগর নিগম এলাকার সৃজনী প্রেক্ষাগৃহ সেন্টারে চলছিল টিকাদান। দুর্গাপুর নগর নিগমের মেয়র পারিষদ রাখি তিওয়ারি টিকাকরণ কর্মসূচী সাময়িক বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন৷

জারি নির্দেশিকা, এবার থেকে সরকারি কর্মচারীদের বাধ্যতামূলক ছুটির নির্দেশ কেন্দ্রের

যেহেতু টিকা নেওয়ার পরই তাদের মৃত্যু হয়েছে, তাই টিকাকেই দায়ী করছে পরিবারের সদস্যরা। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, এর আগে করোনা টিকা নেওয়ার পর  ১০ জনের শরীরে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। তাদের মধ্যে সাতজন সুস্থ হয়েছে, ৩ জনের  হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে । কিন্তু এরই মাঝে এসেছে ৪ জনের মৃত্যু সংবাদ। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি, প্রতিষেধকের কারণে  এরা কেউ মারা যান নি।প্রতিষেধকের সঙ্গে তাদের মৃত্যুর কোনও যোগাযোগ নেই। অন্য কারণে মৃত্যু হয়েছে ওই চার জনের।

দেশের বেশ কিছু মানুষের মধ্যে  প্রতিষেধক ঘিরে অনীহা তৈরি হয়েছে। প্রতিষেধকের জন্য বহুদিন ধরে অপেক্ষা করেছে মানুষ, কিন্তু এখন সেই প্রতিষেধক নিতে চাইছেন না৷ কারণ তারা ভরসা পাচ্ছেন না। টিকা নেওয়ার পর কি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হবে সেই আশঙ্কায় তাদের এই অনীহা৷ এর ওপর এই মৃত্যু সংবাদ  কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের জন্য  যথেষ্ট অস্বস্তিকর।