জনতার খাতায় আসছে 25, 25 হাজার টাকা ,ব্যাঙ্কের বাইরে লেগে গেল লম্বা লম্বা লাইন !

যেমনভাবে লোকসভা নির্বাচন এগিয়ে আসছে তেমনি কিছু কিছু খবর সামনে আসছে যার উপর বিশ্বাস করা খুবই মুশকিল হয়ে উঠেছে। অধিকাংশ সময় এটা শুনতে পাওয়া যায় যে ব্যাংকে খাতা থাকা লোকেদের কোন না কোন কারণে তাদের ব্যাংকে থাকা টাকার কিছু পরিমাণ কাটা যায় কারণ স্বরূপ ব্যাংকে এমন একটা তথ্য পাওয়া যায় যার উপর বিশ্বাস করা অনেক সময় কঠিন হয়ে ওঠে। কিন্তু এখন যদি আপনাদের আমরা বলি যে কারো কারো ব্যাংক একাউন্টে 20 থেকে 25 হাজার টাকার মতো বিনা কোন কারণ নেই ঢুকে যাচ্ছে তাহলে এই ব্যাপারটির ওপর আপনারা হয়তো অবিশ্বাস করবেন তবে ব্যাপারটি অবিশ্বাস যোগ্য হলেও সত্যিই।


আসুন আপনাদের জানাই এর পেছনে আসল ঘটনাটি কী? ঘটনাটি পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার, যেখানে গ্রামের কিছু মানুষের ব্যাংক একাউন্টে হঠাৎ করে আসছে টাকা। কিছু জনের ব্যাংক একাউন্টে তো একবারের জায়গায় দুবার করে এসেছে টাকা। প্রথমে তো তাদের বিশ্বাস ই হয়নি যে তাদের ব্যাংক একাউন্টে এরকম ভাবে টাকা ঢুকেছে তারা প্রথমে ভেবেছিল যে ব্যাংক থেকে আসা এসএমএস গুলি হয়তো ভুয়ো। পরে ব্যাংকে যাবার পর এ ব্যাপারে জানতে পারেন তারা যে সত্যিই তাদের ব্যাংক একাউন্টে টাকা ঢুকেছে। এখনো পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী এটা জানতে পারা গেছে যে,বর্ধমান জেলার কেতুগ্রাম 2 নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির শিবলুন, বেলুন, তোলবাড়ি, সেনপাড়া অম্বালগ্রাম,নবগ্রাম এবং গঙ্গাটিকুরী এই সব এলাকা গুলির মধ্যে অবস্থিত মানুষের ব্যাংকের খাতাতে এই অংকের টাকা গুলি ঢুকেছে। তবে এখনো জানতে পারা যায় নি যে এই অর্থটি কোথা থেকে তাদের ব্যাংকের একাউন্টে এসেছে।

সংবাদ মাধ্যমের সূত্র থেকে এটি জানতে পারা যায় সে যে যাদের ব্যাংক একাউন্টে টাকা আছে সেখানে রাশির পরিমাণ 10000 থেকে 25000 এর মধ্যে রয়েছে। এখনো পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানতে পারা গেছে যে ইউকো ব্যাংক,ইউনাইটেড ব্যাঙ্ক,ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া, এস বি আই এই খাতা গুলিতে এই পরিমাণ অর্থ টি এসেছে এবং এই ব্যাংক গুলির ম্যানেজার এটা জানতে অক্ষম যে এই পরিমাণ টাকা টি এসেছে কোথা থেকে। আপনাদের সুবিধার্থে বলে দিই সবার ব্যাংক একাউন্টে এই টাকা টি এন এফ টির দ্বারা পাঠানো হয়েছে এবং এই টাকাটি বার করবার জন্য সেখানে প্রচুর পরিমাণে লাইন ও পড়ে গেছে ইতিমধ্যেই।


আরো জানতে পারা গেছে যে ভিড় বাড়তে দেখে সেখানে পুলিশের একটি দল ও লাগিয়ে দেওয়া হয়েছিল সকালে। তবে এখনো তদন্ত করা হচ্ছে যে এই বিপুল পরিমাণে অর্থ টি এসেছে কোথা থেকে তবে অনেক মানুষ বিশ্বাস করছেন যে নরেন্দ্র মোদী প্রধানমন্ত্রী হবার আগে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সবার ব্যাংক একাউন্টে টাকা আসবে তারই অর্থ এটি। আপনিও কী এই এলাকার মধ্যে বসবাস করেন তাহলে আপনিও ব্যাংকে গিয়ে যোগাযোগ করুন। এ ব্যাপারে আপনাদের কি ধারনা টা আমাদের জানান। আরো এরকম নতুন নতুন খাবারের আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পোর্টালটিতে।