স্বাধীন ভারতে এই প্রথম যখন দেশে হতে চলেছে কোন মহিলার ফাঁসি, অপরাধ শুনে আপনিও কেঁপে উঠবেন

স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে এই প্রথম কোনও মহিলা কয়েদির ফাঁসি হতে চলেছে। এই ঘটনাটি ঘটতে চলেছে উত্তর প্রদেশের মথুরায়৷ মথুরাতে একমাত্র মহিলা ফাঁসিঘরে অমরোহার বাসিন্দা শবনমকে ফাঁসির সাজা দেওয়া হবে। নির্ভয়ার দোষীদের ফাঁসি দেওয়ার পর পবন জল্লাদ এই ফাঁসি ঘর দুবার নিরীক্ষণ করেছেন। তারপর এই সিদ্ধান্ত৷ এরজন্য প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে৷ যদিও, এখনও পর্যন্ত ফাঁসির তারিখ নির্ধারণ হয়নি।

অমরোহার বাসিন্দা শবনম ২০০৮ এর এপ্রিল মাসে তার প্রেমিকের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে নিজের পরিবারের সাতজনকে কুড়ুল দিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করেছিল। এই মামলায় সুপ্রিম কোর্ট শবনমের ফাঁসির সাজা দেয়৷ সেই সাজা বহাল রেখেছিল। এমনকি  রাষ্ট্রপতিও শবনমের প্রাণ ভিক্ষার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন।  ভারত স্বাধীন হওয়ার পর শবনম প্রথম মহিলা কয়েদি যাকে ফাঁসি দেওয়া হবে।

জানিয়ে রাখি, ১৫০ বছর আগে উত্তরপ্রদেশের মথুরাতে মহিলা ফাঁসিঘর বানানো হয়েছিল। কিন্তু দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত  কোনও মহিলাকে ফাঁসি দেওয়া হয়নি। বরিষ্ঠ জেল আধিকারিক শৈলেন্দ্র কুমার বলেন, “এখনও ফাঁসির তারিখ ঠিক হয়নি। কিন্তু আমরা প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছি। ডেথ ওয়ারেন্ট জারি হলেও শবনমকে ফাঁসি দেওয়া হবে।”

ক্রমশ চড়ছে তাপমাত্রার পারদ, আজ থেকে একাধিক জেলাতে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস! তালিকায় উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলা

জেল সুপার পবন জল্লাদ দু’বার ফাঁসিঘরের নিরীক্ষণ করে গিয়েছে।  বিহারের বক্সর থেকে ফাঁসির দড়ি আনা হচ্ছে। শেষ মুহূর্তে কোনও পরিবর্তন  না আসে, তাহলে স্বাধীন ভারতে শবনমই প্রথম মহিলা  যার ফাঁসি দেওয়া হবে।