ব্রেকিং নিউজ- করোনা ভাইরাসের জেরে প্রথম মৃত্যু ভারতে, জারি একাধিক সর্তকতা…

এখন গোটা বিশ্বে একটা আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসের প্রকোপ থেকে গোটা বিশ্ব কীভাবে বেরিয়ে আসতে পারে সে নিয়ে একাধিক গবেষণা। তবে এবার অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও করোনা ভাইরাস এর প্রভাব শুরু হয়ে গেছে। আর এর জেরে গতকাল ভারতে প্রথম করানো ভাইরাস আক্রান্ত এক ব্যক্তির মৃত্যু হল। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে, 76 বছর বয়সী এই বৃদ্ধ ব্যক্তিটি  কর্নাটকের বাসিন্দা, যিনি নাকি করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন। এই ব্যক্তির নাম কালাবুরাগী, গতকাল বৃহস্পতিবার দিন এই ব্যক্তির মৃত্যুর খবর প্রকাশে এসেছে।

এই ব্যক্তিটি কে গত কয়েকদিন ধরে তেলেঙ্গানার একটি হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল বলে জানতে পারা যাচ্ছে। এই বিষয়টিকে নিয়ে তেলেঙ্গানা সরকার কেও সতর্ক করা হয়েছে।গত মঙ্গলবার এই ব্যক্তির মৃত্যু হয়,ফলে চিকিৎসকরা সন্দেহ করেছিলেন তার শরীরে করোনা ভাইরাস আছে তারা কিছু টেস্ট করান পরে বৃহস্পতিবার দিন সেই টেস্টের মাধ্যমে রিপোর্ট প্রকাশে আসে সেখানে জানা যায় এই ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।

ভারতে বর্তমানে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 74 জন গত বৃহস্পতিবার দিন একথা খোদ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী তরফ থেকে জানানো হয়। তবে আরো বলে রাখি এই করোনা ভাইরাস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা সবার থেকে বেশি রয়েছে ভারতের কেরলে। আর তার পরেই নাম রয়েছে হারিয়ানা, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশের। তাই বর্তমানে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে এই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এমন কী এর জেরে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী গত বৃহস্পতিবার দিন জানিয়ে দিয়েছেন সরকারি আধিকারিক, কূটনৈতিক, ইউনাইটেড নেশন, আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং কর্মরত হওয়া ভিসা ছাড়া বাকি সকল ব্যাক্তিদের ভিসা আপাতত এপ্রিল 15 তারিখ পর্যন্ত বাতিল করা হবে। আর এই বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফ থেকে যে বিবৃতি বেরিয়ে এসেছে সেখানে জানানো হয়েছে এই করোনা ভাইরাসই হল বিশ্বের উপর মহামারীর থাবা।আর কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য এবং পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে আপাতত সমস্ত ট্যুরিস্টদের ভিসা বাতিল করেছে প্রশাসন। আর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে 13 ই মার্চ থেকে। তাছাড়া সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যেসব মানুষেরা 15 ই ফেব্রুয়ারির পরের চীন, ফ্রান্স, স্পেন, কোরিয়া, ইতালি থেকে এদেশে ফিরেছেন তাদের বিশেষ নজরদারির মধ্যে রাখা হবে। যেহেতু কেরলে এই ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেশি দেখা গিয়েছে সেহেতু কেরলের সমস্ত সিনেমা হল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার সরকার।

Related Articles

Back to top button